৩১ অগস্ট, ১৯২৮


 

রাখিপূর্ণিমা


কাহারে পরাব রাখি যৌবনের রাখিপূর্ণিমায়,

হে মোর ভাগ্যের দেব! লগ্ন যেন বহে নাহি যায়।

মেঘে আজি আবিষ্ট অম্বর, ঘনবৃষ্টি-আচ্ছাদনে

অস্পষ্ট আলোর মন্ত্র আকাশ নিবিষ্ট হয়ে শোনে,

বুঝিতে পারে না ভালো। আমি ভাবিতেছি একা বসে।

আমার বাঞ্ছিত কবে বাহিরিল প্রচ্ছন্ন প্রদোষে

চিহ্নহীন পথে।  এসেছিল দ্বারের সম্মুখে মোর

ক্ষণতরে।  তখনো রজনী মম হয় নাই ভোর,

হৃদয় অস্ফুট ছিল অর্ধ জাগরণে।  ডাকে নি সে

নাম ধরে, দুয়ারে করে নি করাঘাত, গেছে মিশে

সমুদ্রতরঙ্গরবে তাহার অশ্বের হ্রেষাধ্বনি।

হে বীর অপরিচিত, শেষ হল আমার রজনী,

জানা তো হল না কোন্‌ দুঃসাধ্যের সাধন লাগিয়া

অস্ত্র তব উঠিল ঝঞ্ঝনি।  আমি রহিনু জাগিয়া।

 

 

  •  
  •  
  •  
  •  
  •