কলিকাতা,২৩ শ্রাবণ, ১৩৩৫


 

দ্বৈত


আমি যেন গোধূলিগগন

                  ধেয়ানে মগন,

স্তব্ধ হয়ে ধরা-পানে চাই;

                  কোথা কিছু নাই,

শুধু শূন্য বিরাট প্রান্তরভূমি।

তারি প্রান্তে নিরালা পিয়ালতরু তুমি

                  বক্ষে মোর বাহু প্রসারিয়া।

            স্তব্ধ হিয়া

শ্যামল স্পর্শনে আত্মহারা,

বিস্মরিল আপনার সূর্যচন্দ্রতারা।

            তোমার মঞ্জরী

কভু ফোটে, কভু পড়ে ঝরি;

                  তোমার পল্লবদল

       কভু স্তব্ধ, কভু-বা চঞ্চল।

            একেলার খেলা তব

আমার একেলা বক্ষে নিত্যনব।

            কিশলয়গুলি

       কম্পমান করুণ অঙ্গুলি

চায় সন্ধ্যারক্তরাগ,

       আলোর সোহাগ;

           চায় নক্ষত্রের কথা,

চায় বুঝি মোর নিঃসীমতা।

 

 

  •  
  •  
  •  
  •  
  •